রাজশাহী দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবৈধ মাইক্রো বাস স্ট্যান্ড উত্ত্যক্তের শিকার রোগী ও স্বজনরা

0
9
durgapur shatho complax

রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহী দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে গত ৫বছর ধরে ২০-৩০ টি মাইক্রোবাস নিয়ে অবৈধভাবে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে গড়ে উঠছে একটি স্ট্যান্ড।

মাইক্রোবাসের ড্রাইভার ও হেলপাররা বসে আছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গেটে। হাসপাতালের স্ট্যান্ডকে ঘিরে ড্রাইভার ও হেলপাররা রাত লাগলেই শুরু করে দেন নারি ও নেশা নিয়ে ব্যবসা ও ফুর্তি করে আসছে। এবং মাদকের জমজমাট আসর।

মাদক সেবন করে স্বাস্থ কমপ্লেক্সের ভিতরেই তাদের মাতলামিতে দিনরাত অতিষ্ট হয়ে পড়েছেন রোগী ও রোগীর স্বজনরা। গত কয়েক বছরধরে প্রভাবশালীর দাপটে দুর্গাপুরের মাইক্রোবাস মালিকরা বাজারে মাইক্রো পাকিং করার জায়গা না থাকার অজুহাতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে স্ট্যান্ডের কাজ করে আসছেন।

অনেক সময় প্রশাসনের চাপে পাকিং জাগয়া দখল মুক্ত করলেও কিছু দিন হতে না হতেই প্রভাবশালীদের দাপটে আবারও স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ভিতরেই মাইক্রোবাস পাকিং শুরু হয়। ড্রাইভার ও হেলপাররা দিন- রাত হাসপাতাল গেট সংলগ্ন অপেক্ষা করে বিড়ি-সিগারেট ও অন্যান্য নেশা জাতীয় দ্রব্য পান করেন।

দূর্গাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানালেন দূর্গাপুর অবৈধভাবে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে গড়ে উঠছে একটি স্ট্যান্ড। মাইক্রোবাসের ড্রাইভার ও হেলপাররা বসে আছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গেটে।

হাসপাতালের স্ট্যান্ডকে ঘিরে ড্রাইভার ও হেলপাররা রাত লাগলেই শুরু করে দেন নারি ও নেশা নিয়ে ব্যবসা ও ফুর্তি করে আসছে। এবং মাদকের জমজমাট আসর।দূর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টি এস, ডঃ দেওয়ান নাজমুল আলম জানালেন গত ৫বছর ধরে ২০-৩০ টি মাইক্রোবাস নিয়ে অবৈধভাবে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে ব্যাবসায়ী কার ছেন কিছু পোভাব শালি ব্যাক্তি তাদের অনেক খমতা আমি তাদের নিশেদ করর পরো তারা মাইক্রোবাস রাখেন।

দূর্গাপুর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান কাদের মোলা জানান দূর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাইক্রোবাসের ড্রাইভার ও হেলপাররা নারি ও নেশা নিয়ে ব্যবসা ও ফুর্তি করে আসছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here