জিয়া–মৃত্যুতে সিট নয়, – মুম্বই হাইকো

0
18

মুম্বই: জিয়া খানের মা রাবিয়া খানের দায়ের করা পিটিশন বৃহস্পতিবার খারিজ করল মুম্বই হাইকোর্ট। সিবিআইয়ের চার্জশিটকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে রাবিয়া খান হাইকোর্টে পিটিশন দিয়েছিলেন। চার্জশিটে জিয়া খানের মৃত্যু যে খুন নয় আত্মহত্যা, তার স্পষ্ট উল্লেখ ছিল। অন্যদিকে রাবিয়া খানের দাবি, তঁার মেয়েকে সুরজ পাঞ্চোলিই খুন করেছে। মুম্বাই হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের বিচারক আর ভি মোরে ও শালিনী পহানশল্কর জোশী এদিন রাবিয়া খানের পিটিশনটি খারিজ করেন।
রাবিয়ার দাবি, জিয়াকে খুন করেছে তার প্রেমিক অভিনেতা সুরজ পাঞ্চোলি। রাবিয়া খান তাঁর পিটিশনে জিয়ার মৃত্যুর তদম্তে হাইকোর্টের পরিচালনায় বিশেষ তদন্ত দল (‌সিট)‌ গড়তে বলেছিলেন। তিনি এও জানান, ২০১৩ সালের ৩ জুন জিয়ার মৃত্যুকে সিবিআই আত্মহত্যা বলে দাবি করলেও আসলে তা খুন। রাবিয়া খানের আইনজীবী আগেই হাইকোর্টকে জানিয়েছিলেন যে, তদন্তকারী দলের মতে জিয়ার আত্মহত্যার কারণ হল অবসাদ, যা কোনওভাবেই সত্য নয়। এমনকী, জিয়ার মৃত্যুর সময় সূরজ তার বাড়িতেও ছিল না বলে সিবিআই দাবি করে।
অন্যদিকে, সিবিআইয়ের অনিল সিং জানান, জিয়া খানের মৃত্যুর সময় সুরজ জুহুর এক হোটেলে ছিলেন। সিসি টিভি ফুটেজে তা পাওয়া গিয়েছে। তদন্তে উঠে এসেছে জিয়া খানের শৈশব খুব একটা ভাল ছিল না, এমনকী অল্প বয়সে জিয়া আত্মহত্যার চেষ্টাও করে।
রাবিয়ার পিটিশনে জিয়ার শরীরে পাওয়া আঘাতের চিহ্নকে শারীরিক ভাবে অত্যাচার বলা হয়েছে। জিয়া খানের মৃত্যুর পর সুরজ পাঞ্চোলিকে ২০১৩-‌র ১০ জুন আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। তবে ওই বছরের ২ জুলাই সুরজ হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়ে যান। তবে সিবিআই এবং মুম্বই পুলিস দু’‌জনেই জিয়া খানের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলেই দাবি করেছেন।     ‌‌

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here