গোপালগঞ্জে গায়ে আগুন ধরিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

0
13
Gopalgonj Photo-2

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে সাথী (১৮) নামে এক গৃহবধূ গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার গভীর রাতে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মারা যান তিনি। এর আগে রাত আনুমানিক ৯টার দিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপাড়া নবপল্লী গ্রামে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন ওই গৃহবধূ। সাথী একই উপজেলার বৌলতলী গ্রামের শ্যামলের মেয়ে।
স্থানীয় ও স্বজনরা জানিয়েছেন, ৬ মাস আগে একই গ্রামের গোবিন্দ চাঁদের সঙ্গে সাথীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে কলহ চলে আসছিল। এরই জের ধরে সাথী নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় তার স্বামী বা অন্য কেউ বাড়িতে ছিল না। পরে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন ঘটনাটি টের পেয়ে তাকে গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গভীর রাতে মারা যায় সাথী। খবর পেয়ে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন হাসপাতালে যায়।
গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।
গোপালগঞ্জে গায়ে আগুন ধরিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে সাথী (১৮) নামে এক গৃহবধূ গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার গভীর রাতে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মারা যান তিনি। এর আগে রাত আনুমানিক ৯টার দিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপাড়া নবপল্লী গ্রামে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন ওই গৃহবধূ। সাথী একই উপজেলার বৌলতলী গ্রামের শ্যামলের মেয়ে।
স্বজনরা জানিয়েছেন, ৬ মাস আগে একই গ্রামের গোবিন্দ চাঁদের সঙ্গে সাথীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে কলহ চলে আসছিল। এরই জের ধরে সাথী নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় তার স্বামী বা অন্য কেউ বাড়িতে ছিল না। পরে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন ঘটনাটি টের পেয়ে তাকে গুরুতর দগ্ধ অব¯’ায় উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অব¯’ায় গভীর রাতে মারা যায় সাথী। খবর পেয়ে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন হাসপাতালে যায়।
গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here