মণিরামপুর স্কুল ছাত্রীর ধর্ষণকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

0
18
মণিরামপুর স্কুল ছাত্রীর ধর্ষণকারীদের

রাজগঞ্জ : মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী (১৪) কে অপহরণের পর ধর্ষণ ও ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারণের নাথে জড়িত পুলিশ পুত্র রোমান এবং তার দুই সহযোগি রয়েল ও রুবেলের গ্রেফতারসহ দ্রুত বিচারের দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে।

বুধবার বেলা ১১ টার দিকে বিদ্যালয়ের প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থীরা ও শিক্ষক  মিলে রাজগঞ্জ বাজারে এই মানববন্ধন করে। সংশ্লিষ্ট ঘটনায় মানববন্ধবনের পক্ষ থেকে দাবিগুলো হচ্ছে, ভিকটিম ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করণ,ভিকটিমের মানসিক ও শারীরিক সুরক্ষার ব্যাবস্থা গ্রহণ,ভিকটিমের লেখাপড়া নিয়মিত চালিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ ও সকল স্কুলের ছাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করণ।

একই দাবিতে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট স্মারকলিপি প্রদানের কথা থাকলেও বিকেলে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তা ইউএনও অফিসে জমা পড়েনি। এবিষয়ে জানতে চাইলে রাজগঞ্জ শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম জানান, ছাত্রীর ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের আটকের দাবিতে তারা মানববন্ধন করেছেন।

বিকেলে এই ব্যাপারে ইউএনও বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হবে। মানববন্ধনের ব্যাপারে জানতে চাইলে থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ বলেন,‘ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত মূল আসামিদের আটকে পুলিশ তৎপর রয়েছে।’ প্রসঙ্গত,গত ২৯ জানুয়ারী বিকেলে ওই ছাত্রীকে মোটরসাইকেলযোগে অপহরণ করে উপজেলার মশ্মিমনগর ইউনিয়নের নলতা হাকিমপুর গ্রামের কথিত কবিরাজ সাখাওয়াতের বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে রুমান। যার ভিডিও চিত্র মোবাইলে ধারণ করে রুমানের দুই সহযোগি রয়েল ও রুবেল। এরা সকলেই রাজগঞ্জ এলাকার।

এই ঘটনায় মণিরামপুর থানায় একটি অপহরণ ও আদালতে ধর্ষণ মামলা করেন ভিকটিমের পরিবার। তবে,ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনার মূল আসামি রুমান, রয়েল ও রুবেলকে গ্রেফতারে পুলিশ সক্ষম না হলেও ইতিমধ্যে কথিত সাখাওয়াত কবিরাজ,আসামি রুমানের মা এবং রুবেল ও রয়েল পিতামাতাকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। যদিও তারা এখন জামিনে রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here